বুধবার, ১৬ Jun ২০২১, ০৫:১২ পূর্বাহ্ন

সর্বশেষ সংবাদঃ
শর্ত সাপেক্ষে অটোপাস পাচ্ছেন অনার্স প্রথম বর্ষের শিক্ষার্থীরা পুলিশ ম্যাজিকের মতো সবকিছু করেছেন: পরীমণি দেশে জনসনের ভ্যাকসিনের অনুমোদন মাদারীপুরে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ২,আহত ১ দেশে অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকা নিয়েছেন ১ কোটি ৭৩ হাজার ৫১৪ জন রাষ্ট্রপতি কাজাখ রাজধানীতে ওআইসি সম্মেলনে ভার্চুয়ালি যোগ দিবেন সবুজ-শ্যামল বাংলাদেশ আরো সবুজ হোক: প্রধানমন্ত্রী জয়পুরহাটে গাঁজাসহ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার ২৪ ঘণ্টায় দেশে করোনায় মৃত্যু ৫০, শনাক্ত ৩৩১৯ মোংলা বন্দরে যুক্ত হচ্ছে মাল্টিপারপাস মোবাইল ক্রেন সংসদে হজ ও ওমরা ব্যবস্থাপনা বিল পাস বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মেরিটাইম ইউনিভার্সিটিতে চাকরি পরীক্ষার স্থান, সময় ও প্রার্থীর তালিকা সাধারণ বীমা করপোরেশনের ওয়েবসাইটে পাওয়া যাবে পরীমনিকে সাহায্য করেনি পুলিশ, প্রমাণ সিসিটিভি ফুটেজে ডিবি কার্যালয়ে পরীমনি
পাকিস্তানে সৌদি বিনিয়োগ অনিশ্চিত!

পাকিস্তানে সৌদি বিনিয়োগ অনিশ্চিত!

পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের বিশেষ সহকারী তাবিশ গৌহর বলেছেন, ‘সৌদি আরব গোয়াদারে শোধনাগার স্থাপন করবে না। তবে বালুচিস্তানের হাব বা করাচির কাছে কোথাও একটি পেট্রোকেমিক্যাল রাসায়নিক কমপ্লেক্সসহ একটি শোধনাগার স্থাপনের ইঙ্গিত দিয়েছে।’

তিনি আরও বলেন, ‘ইমরান খানের সাম্প্রতিক সৌদি আরব সফরের পর পেট্রোলিয়াম বিভাগকে এই শোধনাগারের কোনো উন্নয়ন সম্পর্কে কোনো কথা জানানো হয়নি। তেল সুবিধা পুনরুদ্ধারের বিষয়ে অর্থ বিভাগ সৌদি কর্মকর্তাদের সাথে যোগাযোগ করছে।’

দেশ দুইটির সম্পকের অবনতি হওয়ায় পাকিস্তানের একটি শোধনাগারে সৌদি বিনিয়োগের ভবিষ্যৎ অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে। যেখানে প্রতিদিন ২,৫০,০০০ ব্যারেল অপরিশোধিত তেল পরিশোধন করা যাবে। এদিকে, এসএপিএম বলেছে, আরামকো নীরিক্ষা করে দেখেছে গোয়াদারে শোধনাগার স্থাপন করা সম্ভব নয়।

দ্য নিউজ ইন্টারন্যাশনাল জানিয়েছে, সাম্প্রতিক অতীতে সৌদি আরব এবং পাকিস্তানের মধ্যে সম্পর্কের অবনতির মধ্যে তেল সুবিধা প্রত্যাহার করা হয়েছে। সৌদি আরামকো সেই সময় পাকিস্তান কর্তৃপক্ষকে নির্দেশ দিয়েছিল যে তারা ইমরান খানকে শোধনাগার ও পেট্রোকেমিক্যাল কমপ্লেক্স স্থাপনের সিদ্ধান্তের বিষয়ে শীর্ষ সৌদি নেতৃত্বের সাথে যোগাযোগ করতে বলবে।

তবে পাকিস্তানের পররাষ্ট্র দপ্তর তখন পরামর্শ দিয়েছিল যে দেশটির পররাষ্ট্র নীতির কারণে যে সম্পর্ক শীতল হয়ে উঠেছে তার কারণে এই প্রকল্পে সৌদি নেতা মোহাম্মদ বিন সালমানের সাথে যোগাযোগ করার সঠিক সময় নয়।

উল্লেখ্য, ২০১৯ সালে সৌদি আরব অর্থনীতির বিভিন্ন খাতে ২০ বিলিয়ন মার্কিন ডলারের একটি সমঝোতা স্মারক সই করেছিল। সেখানেই গোয়াদারে শোধনাগার ও পেট্রোকেমিক্যাল কমপ্লেক্সে ১০ বিলিয়ন মার্কিন ডলার বিনিয়োগের ঘোষণা দিয়েছিল। সূত্র: এএনআই

শেয়ার করুন

Leave a Reply




মালিকানা স্বত্ব © এমএমবি নিউজ ২৪- ২০২১
ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার সম্পূর্ণ বেআইনি এবং শাস্তিযোগ্য অপরাধ।