শুক্রবার, ২৩ Jul ২০২১, ০৮:৫১ অপরাহ্ন

সর্বশেষ সংবাদঃ
হংকং ক্রিকেটে দলের অধিনায়ক আইজাজ খান গ্রেফতার মাইন প্রতিরোধী গাড়ির প্রথম চালান ঢাকায় বিধিনিষেধ ভঙ্গ করে চলছে ফেরি, পায়ে হেঁটে ঢাকা আসছে মানুষ ১৮ বছর হলেই পাওয়া যাবে করোনার টিকা, সিদ্ধান্ত দ্রুতই টি-টোয়েন্টি সিরিজে সমতা ফেরালো জিম্বাবুয়ে বিধিনিষেধের প্রথম দিনে রাজধানীতে ৪০৩ জন গ্রেপ্তার বরগুনার দুই নারী কামারের কাজ করে জীবিকা নির্বাহ আফগান বাহিনীকে সহযোগিতায় কয়েক দফা বিমান হামলা চালিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র : পেন্টাগন দ.আফ্রিকায় সহিংসতায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৩৩৭ পর্দা উঠল টোকিও অলিম্পিকের সন্তানকে রক্ষা করে মারা গেলেন মা পদ্মার পিলারে ফেরির ধাক্কা, তদন্ত কমিটি গঠন বিধিনিষেধ অমান্য: মালয়েশিয়ায় ২৫ বাংলাদেশি গ্রেপ্তার গত ২৪ ঘন্টায় করোনায় মৃত্যু ১৬৬, শনাক্ত ৬৩৬৪ কঠোর বিধিনিষেধে রাজধানীর চিত্র
বরগুনায় নির্বাচনের নামে সার্কাস, মেয়র পদে বাবা-মেয়ের মনোনয়নপত্র দাখিল

বরগুনায় নির্বাচনের নামে সার্কাস, মেয়র পদে বাবা-মেয়ের মনোনয়নপত্র দাখিল

বরগুনা পৌরসভায় মেয়র পদে ১০ জন মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন। এর মধ্যে বর্তমান মেয়র শাহাদাত হোসেন ও তার মেয়ে মহাসিনা মিতু স্বতন্ত্র পদে মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন। এছাড়া সাধারণ কাউন্সিলর পদে ৩৫ জন ও সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলর পদের ১৪ জন প্রার্থী মনোনয়ন জমা দিয়েছেন।

জেলা নির্বাচন অফিস সূত্রে জানা যায়, বৃহস্পতিবার নয়জন মেয়র পদে মনোনয়ন দাখিল করেন। এরা হলেন- আওয়ামী লীগের মনোনয়নপ্রাপ্ত এডভোকেট মো. কামরুল আহসান মহারাজ, জাতীয় পার্টির আবদুল জলিল হাওলাদার, ইসলামী শাসনতন্ত্র আন্দোলন বাংলাদেশ মো. জালাল উদ্দিন, স্বতন্ত্র শাহাবুদ্দিন, স্বতন্ত্র মো. জসীম উদ্দিন, স্বতন্ত্র মো. ছিদ্দিকুর রহমান পান্না, বিএনপি মো. আবদুল হালিম, স্বতন্ত্র নিজাম উদ্দিন ও মহাসিনা মিতু। এর দুই দিন আগে স্বতন্ত্র প্রার্থী বর্তমান মেয়র শাহাদাত হোসেন মনোনয়নপত্র দাখিল করেন।

বরগুনা জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক গোলাম সরোয়ার টুকু বলেন, মেয়র শাহাদাত হোসেন বরগুনা পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক। গত ২০১৫ সালেও মেয়র পদে দলীয় মনোনয়ন না পেয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়ে দলীয় প্রার্থী কামরুল আহসান মহারাজকে টাকার জোরে নির্বাচনের দিন বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করে দলীয় প্রার্থীকে আহত করে ভোট কেটে মেয়র নির্বাচিত হয়েছেন। এবারও শাহাদাত হোসেন দলীয় মনোনয়ন বঞ্চিত হয়ে নিজে স্বতন্ত্র, মেয়ে মিতু ও তার সমর্থক নিজাম উদ্দিনকে দিয়ে স্বতন্ত্র মনোনয়ন দাখিল করিয়েছেন। তিনি বলেন, দল করবেন, দলের সব সুযোগ-সুবিধা ভোগ করবেন, নিজের লোকজন নিয়ে লুটপাট করবেন; আর নির্বাচন আসলে টাকার জোরে নির্বাচন করবেন। এবার দলের সব নেতাকর্মী ঐক্যবদ্ধ। তার (শাহাদাত) সব ষড়যন্ত্র এবার মোকাবেলা করা হবে।

মনোনয়ন বঞ্চিত শাহাদাত হোসেন গণমাধ্যমকে বলেন, আমাকে যে কোনো সময় মেরে ফেলতে পারে। এ কারণে আমার মেয়েকে দিয়ে মনোনয়ন দাখিল করাতে বাধ্য হয়েছি। আপনি দলের বিরুদ্ধে কেন মনোনয়ন দাখিল করেছেন- এমন প্রশ্নে তিনি বলেন, জনগণের চোখের পানি মোছার জন্য আবারও স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়েছি। দলের সভাপতি শেখ হাসিনার কথা অমান্য করে নির্বাচন করেন কেন- এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, আমি নৌকাকে ভালোবাসি। তারপরও জনগণের কথা চিন্তা করে আমাকে নির্বাচন করতে হচ্ছে। জনগণ আমাকে চায়। জনগণ আমার জন্য নীরবে কাঁদে। বড়িয়ালপাড়ার লোকজনের ঘরবাড়ি যখন ডিসি ভেঙে ফেলে তখন তো দলের লোকজন তাদের রক্ষা করেনি। আমি ঢাকা থেকে এসে ঘরবাড়ি রক্ষা করেছি।

এ ব্যাপারে আওয়ামী লীগের মনোনয়নপ্রাপ্ত এডভোকেট মো. কামরুল আহসান মহারাজ বলেন, গত নির্বাচনে আমাকে আওয়ামীলীগ থেকে মনোনয়ন দেয়া সত্তেও কতিপয় আওয়ামীলীগ নামধারী সুবিধাবাদী লোক সাবেক মেয়রের টাকা খেয়ে ভোট কেটে আমাকে হারিয়েছে। আমার জনসমর্থন দেখে তারা ভীত হয়ে আমাকে মেরে ফেলার জন্য গুলি করে। মহান আল্লাহর দয়ায় বেঁচে আছি। এবারও আপনারা গণমাধ্যমকর্মীরা ইতিমধ্যে দেখেছেন সাধারণ মানুষ আমার জন্য মাঠ পর্যায় করছে। তবে আমার বিরুদ্ধে আবারো কঠিন ষড়যন্ত্র হচ্ছে। আপনারা গণমাধ্যমকর্মীরাসহ, সাধারণ জনগন ও আয়ামীলীগের নেতা কর্মীদের সজাগ থাকার আহবান জানাচ্ছি।

উল্লেখ্য, ৩ জানুয়ারি প্রার্থিতা বাছাই। ১০ জানুয়ারি প্রত্যাহার ও ৩১ জানুয়ারি ভোটগ্রহণ হবে। ভোটার সংখ্যা ২৫ হাজার।

শেয়ার করুন

Leave a Reply




মালিকানা স্বত্ব © এমএমবি নিউজ ২৪- ২০২১
ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার সম্পূর্ণ বেআইনি এবং শাস্তিযোগ্য অপরাধ।