শুক্রবার, ২৩ Jul ২০২১, ১০:০৪ অপরাহ্ন

সর্বশেষ সংবাদঃ
কোরবানি নিয়ে আপত্তিকর মন্তব্য, আটক প্রধান শিক্ষক হংকং ক্রিকেটে দলের অধিনায়ক আইজাজ খান গ্রেফতার মাইন প্রতিরোধী গাড়ির প্রথম চালান ঢাকায় বিধিনিষেধ ভঙ্গ করে চলছে ফেরি, পায়ে হেঁটে ঢাকা আসছে মানুষ ১৮ বছর হলেই পাওয়া যাবে করোনার টিকা, সিদ্ধান্ত দ্রুতই টি-টোয়েন্টি সিরিজে সমতা ফেরালো জিম্বাবুয়ে বিধিনিষেধের প্রথম দিনে রাজধানীতে ৪০৩ জন গ্রেপ্তার বরগুনার দুই নারী কামারের কাজ করে জীবিকা নির্বাহ আফগান বাহিনীকে সহযোগিতায় কয়েক দফা বিমান হামলা চালিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র : পেন্টাগন দ.আফ্রিকায় সহিংসতায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৩৩৭ পর্দা উঠল টোকিও অলিম্পিকের সন্তানকে রক্ষা করে মারা গেলেন মা পদ্মার পিলারে ফেরির ধাক্কা, তদন্ত কমিটি গঠন বিধিনিষেধ অমান্য: মালয়েশিয়ায় ২৫ বাংলাদেশি গ্রেপ্তার গত ২৪ ঘন্টায় করোনায় মৃত্যু ১৬৬, শনাক্ত ৬৩৬৪
প্রাথমিক সহকারী শিক্ষকদের বিভাগীয় প্রার্থিতা বহালের দাবিতে সংবাদ সম্মেলন

প্রাথমিক সহকারী শিক্ষকদের বিভাগীয় প্রার্থিতা বহালের দাবিতে সংবাদ সম্মেলন

নূরুল ইসলাম নূর, শরীয়তপুর প্রতিনিধি:

সহকারি শিক্ষকদের বিভাগীয় প্রার্থিতা ছাড়ায় নিয়োগ বিধি সচিব কমিটিতে পাস হওয়ায় প্রাথমিক সহকারি শিক্ষকদের বিভাগীয় প্রার্থিতা বহালের দাবিতে মানববন্ধন কর্মসূচি অনুষ্ঠিত হয়েছে। আজ ১৮ই জুলাই ঢাকার রিপোর্টার্স ইউনিটে বাংলাদেশ প্রাথমিক সহকারী শিক্ষক পরিষদের উদ্যোগে এই মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

মানববন্ধনে বাংলাদেশ সহকারী শিক্ষক পরিষদের সভাপতি শেখ মুজাম্মেল হোসেন বলেন, পূর্বের মতোন আমাদের বিভাগীয় প্রার্থিতা বহাল রাখতে হবে। শিক্ষার মুল ভিত তৈরি করেন শিক্ষক। একজন শিশুকে লালনপালন করে বড় করে তুলেন নিজ মহিমায়। অথচ শিক্ষার কারিগর যারা, যারা নতুন বাংলাদেশের ভীত রচনা করছেন তাদের ছাড়ায় নিয়োগ বিধি পাস করার চক্রান্ত চলছে। আমরা এই চক্রান্ত মেনে নিবো না। আমরা আমাদের অধিকার ফিরে না পেলে দুর্বার আন্দোলন গড়ে তুলবো। মাননীয় প্রতিমন্ত্রী ও সচিব মহোদয়ের কাছে অনুরোধ জানাচ্ছি অবিলম্বে আমাদের সমস্যার সমাধান করুন তা না হলে এই শিক্ষকেরা মাঠে নামতেও প্রস্তুত আছেন।

সাধারন সম্পাদক রবিউল আওয়াল বলেন, শিক্ষক একটা জাতির মেরুদণ্ড অথচ শিক্ষকদের একের পর এক সমস্যা তৈরি করে শিক্ষকদের দাবিয়ে রাখার চেষ্টা করা হচ্ছে। আমরা শিক্ষক, আমাদের অধিকার আছে। আমরাও স্বপ্ন দেখি। তাই অধিকার থেকে বঞ্চিত করে রাখা যাবে না। আমরা ১৮ মাস ডিপিএড প্রশিক্ষণ গ্রহন করেছি। ডাটা কিনে ক্লাস করেছি। অনেকের এনড্রয়েড মোবাইল না থাকায় মোবাইল কিনতে হয়েছে। এ্যাসাইনমেন্ট থেকে শুরু করে সব ধরনের কাজ আমরা করেছি। অথচ আমাদের আজ ভাতা দেওয়া হচ্ছে না। নিয়োগ বিধিতে আমাদের বঞ্চিত করার চেষ্টা করা হচ্ছে। দীর্ঘদিন পদোন্নতি বন্ধ আছে। বিভিন্ন সমস্যা তৈরি করে পদোন্নতিকে আটকানোর একধরনের চক্রান্ত চলছে অধিদপ্তরে, মন্ত্রনালয়ে। অথচ আমাদের ডিপার্টমেন্টর বড় বড় কর্মকর্তাদের পদোন্নতি প্রতিবছরেই হচ্ছে। আমাদের এভাবে বঞ্চিত করে দেশ এগিয়ে নেওয়া খুব কঠিন। তাই আমি মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনাকে এই বিষয়ে নজর রাখার অনুরোধ জানাচ্ছি।

উল্লেখ্য যে, ক্যাডার নক্যাডার নিয়োগ বিধিমালা ২০২১ সহকারি শিক্ষকদের বিভাগীয় প্রার্থিতা ছাড়ায় সচিব কমিটিতে পাশ হয়। এতে প্রধান শিক্ষকদের বিভাগীয় প্রার্থিতার সুযোগ থাকলেও বয়সের বান্ডিং রাখা হয়। অনেক প্রধান শিক্ষক মনে করেন এতে শুধু সহকারি নয়, কৌশলে প্রধান শিক্ষকদেরও ঠকানো হয়েছে। তারা মনে করছেন ঐ বয়সে পরীক্ষায় অংশ গ্রহনের সুযোগ থাকবে না আর থাকলেও প্রধান শিক্ষক শিশুদের সাথে থেকে তাদের মানুষ করতে গিয়ে বিভাগীয় প্রার্থিতায় ২% ও পাশ মার্ক তুলতে পারবেন না। আর এতেই শিক্ষকদের মধ্যে চরম হতাশা তৈরি হয়। তারা ফেসবুকসহ সব সামাজিক মাধ্যমে প্রতিবাদের ঝড় তুলেন। তারই ধারাবাহিকতায় আজ বাংলাদেশ সহকারি শিক্ষক পরিষদ এই সংবাদ সম্মেলন আয়োজন করেন।

সংবাদ সম্মেলনে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক ছাড়াও সিনিয়র সহসভাপতি জসিম ব্যাপারী, সহ সভাপতি রিগান আহম্মেদ, যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক আবু তাহের, সাংগঠনিক সম্পাদক ফারজানা আক্তার, সাইফুল ইসলাম সাইফ সহ অনেকেই উপস্থিত ছিলেন।

শেয়ার করুন

Leave a Reply




মালিকানা স্বত্ব © এমএমবি নিউজ ২৪- ২০২১
ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার সম্পূর্ণ বেআইনি এবং শাস্তিযোগ্য অপরাধ।