শুক্রবার, ২৩ Jul ২০২১, ০৯:২২ অপরাহ্ন

সর্বশেষ সংবাদঃ
হংকং ক্রিকেটে দলের অধিনায়ক আইজাজ খান গ্রেফতার মাইন প্রতিরোধী গাড়ির প্রথম চালান ঢাকায় বিধিনিষেধ ভঙ্গ করে চলছে ফেরি, পায়ে হেঁটে ঢাকা আসছে মানুষ ১৮ বছর হলেই পাওয়া যাবে করোনার টিকা, সিদ্ধান্ত দ্রুতই টি-টোয়েন্টি সিরিজে সমতা ফেরালো জিম্বাবুয়ে বিধিনিষেধের প্রথম দিনে রাজধানীতে ৪০৩ জন গ্রেপ্তার বরগুনার দুই নারী কামারের কাজ করে জীবিকা নির্বাহ আফগান বাহিনীকে সহযোগিতায় কয়েক দফা বিমান হামলা চালিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র : পেন্টাগন দ.আফ্রিকায় সহিংসতায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৩৩৭ পর্দা উঠল টোকিও অলিম্পিকের সন্তানকে রক্ষা করে মারা গেলেন মা পদ্মার পিলারে ফেরির ধাক্কা, তদন্ত কমিটি গঠন বিধিনিষেধ অমান্য: মালয়েশিয়ায় ২৫ বাংলাদেশি গ্রেপ্তার গত ২৪ ঘন্টায় করোনায় মৃত্যু ১৬৬, শনাক্ত ৬৩৬৪ কঠোর বিধিনিষেধে রাজধানীর চিত্র
কুড়িয়ে পাওয়া আড়াই লাখ টাকা ফেরত দিলেন চাকুরিজীবী

কুড়িয়ে পাওয়া আড়াই লাখ টাকা ফেরত দিলেন চাকুরিজীবী

মেজবাহুল হিমেল, রংপুর জেলা প্রতিনিধি:

রংপুর নগরীতে রাস্তায় কুড়িয়ে পাওয়া দুই লাখ আটত্রিশ হাজার টাকা ফেরত দিয়েছেন এক চাকুরিজীবী। ওই টাকার সঙ্গে এক লাখ আশি হাজার টাকার একটি চেকও ছিল। ঘটনাটি ঘটেছে নগরীর নবাবগঞ্জ পুলিশ ফাঁড়ি সংলগ্ন জুম্মাপাড়া এলাকায়। রোববার বেলা দেড়টার দিকে নগরীর নবাবগঞ্জ পুলিশ ফাঁড়ি সংলগ্ন জুম্মাপাড়া রোডে কাগজে মোড়ানো পড়ে থাকা টাকাগুলো কুড়িয়ে পান আজিজুর রহমান জুয়েল। পরে বেলা চারটার দিকে প্রকৃত মালিককে সন্ধান করে চেকসহ টাকাগুলো ফেরত দেন তিনি।

আজিজুর জুম্মাপাড়া এলাকার বাসিন্দা। তিনি র‌্যাংকস পেট্রোলিয়াম লিমিটেডের (শেল ল্যুবরিকেন্ট) ডেপুটি ম্যানেজার পদে চাকুরী করছেন।
আজিজুর রহমান জানান, দুপুরে বাড়ি থেকে বের হয়ে বাজারে যাবার পথে রাস্তায় অনেকগুলো টাকা পড়ে থাকতে দেখেন। এতগুলো টাকা দেখে তিনি নিজেই ভয় পেয়েছিলেন। পরে টাকাগুলো কুড়িয়ে নেন। ওই টাকাগুলো একটা টিস্যু জাতীয় কাগজে মোড়ানো ছিল। টাকাগুলো কুড়িয়ে নেওয়ার পর, তা তিনি একটা ব্যাগে করে নিয়ে যান।

ব্যক্তিগত কাজ শেষ করে বাসায় ফিরে টাকার প্রকৃত মালিকের সন্ধানে চেষ্টা করেন। পরে টাকার সঙ্গে থাকা চেকের পিছনে লেখা ফোন নম্বর দেখতে পান। সেই নম্বরে যোগাযোগ করে টাকা হারিয়ে যাবার বিষয়টি নিশ্চিত হন। পরে টাকার মালিককে প্রয়োজনীয় প্রমাণসহ দেখা করতে বলেন।

তিনি আরও বলেন, মুঠোফোন নম্বরে কথা বলে জানতে পারি টাকাগুলো প্রাণ গ্রুপে কর্মরত আলমগীর হোসেন নামে একজন হারিয়ে ফেলেছেন। পরে বিকেলে ওই ব্যক্তি প্রমাণসহ উপস্থিত হন। সবকিছু যাচাই বাছাই করে স্থানীয়দের উপস্থিতিতে টাকার বিবরণ ও টাকার সঙ্গে থাকা চেক ফেরত দিয়েছি।

এ বিষয়ে আলমগীর হোসেন জানান, রংপুরে তিনি প্রাণ (আরএফএল) গ্রুপের এরিয়া ম্যানেজার হিসেবে কর্মরত রয়েছেন। হারাগাছ এলাকা থেকে দুইজন ব্যবসায়ীর টাকা নিয়ে মোটরসাইকেলে করে ব্যাংকের দিকে যাচ্ছিলাম। পথিমধ্যে টাকাগুলো রাস্তায় পড়ে যায়, কিন্তু তিনি বুঝতে পারেননি। পরে অনেক খোঁজাখুঁজি করেন। কোথাও হারানো টাকা না পেয়ে চিন্তিত হয়ে পড়েন। পরে একটি অপরিচিত নম্বর থেকে ফোন করে তাকে বেশ কিছু জিজ্ঞেস করা হয় এবং টাকা কুড়িয়ে পাওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করে।

হারানো টাকা ফেরত পেয়ে উচ্ছসিত আলমগীর হোসেন বলেন, টাকাগুলো আমার ছিল না, এটা কোম্পানীর আমানত। আমি ভীষণ চিন্তায় পড়ে গিয়েছিলাম। পরে ফোনে জানার পর মনের বিষণ্নতা দূর হয়। আমার ভাষা নেই, এখন প্রথিবীতে ভালো মানুষ আছে। যার দৃষ্টান্ত আজিজুর রহমান স্থাপন করেছেন। আমি ভীষণ আনন্দিত।

প্রাণ গ্রুপে কর্মরত আরেক প্রতিনিধি লাল মিয়া জানান, টাকা ফেরত পেয়ে আমাদের খুব ভালো লাগছে। যদি এই টাকা ফেরত পাওয়া না যেত, তাহলে অনেক কষ্ট হত। এ টাকার ক্ষতিপূরণ দিতে আমাদেরকে কয়েক মাস কষ্ট করা লাগত। বেতন-ভাতা নিয়ে অসুবিধা হত।

শেয়ার করুন

Leave a Reply




মালিকানা স্বত্ব © এমএমবি নিউজ ২৪- ২০২১
ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার সম্পূর্ণ বেআইনি এবং শাস্তিযোগ্য অপরাধ।