সোমবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৬:২৩ অপরাহ্ন

সর্বশেষ সংবাদঃ
আসন্ন জেলা পরিষদ নির্বাচনে রাজাপুর উপজেলায় সদস্য পদে জমজমাট প্রচারণা আয়ারল্যান্ডকে হারিয়ে অপরাজিত চ্যাম্পিয়ন বাংলাদেশ পঞ্চগড়ে ট্রলারডুবি: মৃত বেড়ে ২৫ সান্তাহারে এ্যাম্পলসহ যুবক গ্রেপ্তার ১ কড়া নাড়ছে দুর্গাপূজা, শেষ সময়ে বগুড়ায় তুলির রঙে রঙিন হচ্ছে প্রতিমা বগুড়ায় ৩৫০০ পিস ইয়াবাসহ গ্রেফতার- ২ মাহমুদুল হাসান সোহাগের ব্যক্তিগত উদ্যোগে ক্রীড়া সামগ্রী বিতরন আজ আমার শেষ দিন এই দেশে, ফেসবুক স্ট্যাটাস লিখে যুবকের আত্মহত্যা মুন্সীগঞ্জে যুবদল কর্মী শাওন নিহতের প্রতিবাদে বগুড়ায় বিক্ষোভ সমাবেশ এবার দুর্গাপূজা ৩২১৬৮ মণ্ডপে কোভিডে আরও ৪ জনের মৃত্যু, শনাক্ত ৩৫০ সরকারি ব্রজমোহন কলেজ মহাত্না অশ্বীনি কুমার (ডিগ্রি) হলে বড় দূর্ঘটনা আতংকে শিক্ষার্থীরা শিল্পীর তুলির টানে ফুটে উঠছে দেবী দুর্গার রূপ!! বগুড়ায় কাঁচাবাজারে অভিযানে চার ব্যবসায়ীর জরিমানা পুলিশের বাধা উপেক্ষা করে সান্তাহারে বিএনপি’র সমাবেশ পাশবিকতা হাত থেকে রক্ষা পেল না প্রতিবন্ধী কিশোরী হাজরে আসওয়াদ: যেভাবে সাদা পাথর কালো হলো বহুমাত্রিক সম্পর্কের রোল মডেল ভারত-বাংলাদেশ ফুটবলে এবার বাংলাদেশের ছেলেদের দুর্দান্ত সাফল্য রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে সুনির্দিষ্ট পদক্ষেপ নেয়ার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর
মহাকাশে দেহের তরল অংশগুলো চালিত হয় উপরের দিকে​​​​​​​

মহাকাশে দেহের তরল অংশগুলো চালিত হয় উপরের দিকে​​​​​​​

মহাকাশ ভ্রমণ বা দীর্ঘদিন মহাকাশে অবস্থানের কারণে বেশ কিছু শারীরিক সমস্যার মুখে পড়তে হয় নভোচারিদের। ওজন কমা, হাড়ের ক্ষয়, শারীরিক কাঠামোয় পরিবর্তনসহ মানসিক সমস্যাও তৈরি হয়। গবেষকরা বলছেন, পৃথিবীর বাইরে মহাকর্ষণের অভাবই সমস্যার কারণ।

একুশ শতকের আধুনিক প্রযুক্তির অনন্য এক নজির মহাকাশ পর্যটন। টেসলা কর্ণধার ইলন মাস্ক, অ্যামাজনের জেফ বেজোস আর ভার্জিন গ্যালাক্টিকের মালিক রিচার্ড ব্রানসনের মতো ধনকুবেররা এরই মধ্যে মহাকাশ পর্যটন ব্যবসায় নেমেছেন। বিক্রি শুরু করেছেন মহাকাশ ভ্রমণের টিকেটও।

তবে দুঃসাহসিক মহাকাশ যাত্রায় আছে বেশকিছু শারীরিক ও মানসিক চ্যালেঞ্জ। এতদিন শুধু পেশাদার নভোচারীরা এসব চ্যালেঞ্জের মুখোমুখি হয়েছেন। এখন পর্যটকদের এর জন্য তৈরি থাকতে হচ্ছে।

মহাকাশে মাইক্রোগ্র্যাভিটির কারণে ওজনহীনতা অনুভব করেন নভোচারীরা। শুরুতে আনন্দ হলেও পরে অস্বস্তি অনুভব হয়। আর এ রোগের বৈজ্ঞানিক নাম স্পেস অ্যাডাপটেশন সিকনেস। এছাড়া মাধ্যাকর্ষণের অভাবে শরীরের ভেস্টিবুলার সিস্টেম ঠিকমতো কাজ না করায় মস্তিষ্কের সাথে দেহের সংযোগ বাধাপ্রাপ্ত হয়। দুর্বল হয়ে যায় মাংশপেশী, ক্ষয় হয় হাড়।

মহাকাশচারী মাটিয়াস মাউরার বলেন, “এখানে আসার পর প্রথম ক’দিন মাথা কিছুটা ঝিমঝিম করে। সবকিছুর সাথে মানিয়ে নিতে মস্তিষ্ককে সবসময় সজাগ রাখতে হয়। কয়েক সপ্তাহ কাটলেও পরও অস্বস্তি কাটেনা।”

মহাকাশে ভাসমান থাকার কারণে দেহের উপরের অংশে রক্ত চলাচল বেশি হয়। এর ফলে নভোচারীদের মুখের অংশ ফুলে যায়। দেহ আকৃতির বদলও হয়। পৃথিবীর চেয়ে মহাকাশে মহাজাগতিক বিকিরণের পরিমাণ ১০ গুণেরও বেশি হওয়ায় চোখেরও ক্ষতি হয়। আর সবচে ভয়ঙ্কর গামা রশ্মি ও আয়নের প্রভাবতো আছেই।

মহাকাশচারী মাটিয়াস মাউরার আরও বলেন, “মহাকাশে নভোচারীদের মুখমণ্ডল চাঁদের মতো গোল হয়ে যায়। এর কারণ মহাকাশে দেহের তরল অংশগুলো উপরের দিকে চালিত হয়। ফলে পায়ে রক্ত চলাচল কম হয়। এবং পৃথিবীর তুলনায় পা চিকন হয়ে যায়। তবে মাথায় বেশি তরল চড়ে গেলে প্রচুর চাপ তৈরি হয়। এছাড়া কমে যায় দৃষ্টিশক্তি। পৃথিবীতে যারা চশমা পরেননা এমন অনেকেরই এখানে চশমার প্রয়োজন হয়।”

মহাকাশে ঘুমচক্র নেই। রাত-দিনের হিসাবও নেই। ফলে দীর্ঘ অবস্থানে মানসিক চাপ তৈরি হয়। বারবার প্রস্রাব করার প্রবণতা থেকে পানিশূন্য হয় নভোচারীর শরীর।

শেয়ার করুন

Leave a Reply




মালিকানা স্বত্ব © এমএমবি নিউজ ২৪- ২০২১
ওয়েবসাইটের লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়াও ব্যবহার করা যাবে। তবে সূত্র এমএমবি নিউজ ২৪ দেয়ার অনুরোধ রইল।
 
বাংলা English